হ্যালো গাইজ সবাই কেমন আছেন আশা করছি ভালই আছেন আপনি আছেন ট্রিকবিডি তে এবং সাথে আছি আমি অনামিকা,
তো চলুন বেশি কথা না বলে পোস্ট এর আসল ট্রপিকে চলে যাই।
বাই দ্যা ওয়ে ইন্ট্রো টা একটা ইউটিউব চ্যানেল থেকে কপি করা।🤣🤣😁

তো গত পোস্টে আমরা Xiaomi MI 3 এর ব্যাপারে আপনাদের কমপ্লিট একটা ওপেনিয়ন দিয়েছিলাম, এবং আপনাদের কাছে প্রচুর রেসপন্স ও পেয়েছি।☺️❤️


তো এই সিরিজের পোস্টগুলি মেবি আমার মত গরীবের 🥺 যাদের পকেটে খুবই ছোট থাকে টাকা বেশি রাখা যায় না আর কি 😁
আমি জানি সবার ই পকেট এ অনেক অনেক টাকা থাকে কিন্তু কিপটামি করে 😬
তো আজকে কথা বলবো এবং একটা ছোটখাটো ওপেনিয়ন দেব গরিবের আরো একটি ফ্লাগশিপ গেমিং ফোন xiaomi MI 3 এর আব্বু Mi 4 এর 😁

আগেই বলে রাখি এটার প্রাইস ঐটা চাইতে ২০০ টাকা বেশি মানে মাত্র ২,৭০০ টাকা।
যেটা দিয়ে বর্তমান সময়ে একটা ভালো মানের মেমোরি কার্ড ও পাওয়া যায় না 😁

যাই হোক আগের পোষ্টের মতো স্বাগতম জানাচ্ছি ফকিন্নি মার্কা ফোনের দুনিয়ায় 🙄😁
তো আপনার পকেটের অবস্থা যদি খুবই খারাপ থাকে আর সেই খারাপ অবস্থা দিয়েই একটি ভালো ফ্লাগশিপ গেমিং ফোন খুঁজছেন 🙄 কিন্তু আপনি বারবার ব্যর্থ হচ্ছেন 🙁 তাহলে পোস্টটি আপনার জন্যই মনে হয় 😬

আগেই বলে রাখি পকেটের অবস্থা খারাপ দেখে বাধ্য হয়ে চাইনিজ ক্লোন কপি ফোন তো কিনে ই থাকেন? এবং সেটা দুই দিনে যাই উগান্ডায় 🥺
তবে এখন আপনাকে এমন একটি ফ্লাগশিপ ফোন এর সাথে পরিচয় করে দিলাম বা দিচ্ছি যেটা অন্তত কিছুদিন ব্যবহার করতে পারবেন ❤️❤️❤️

আচ্ছা প্রথমে বলি ফোনগুলোর কোয়ালিটি কেমন বা এত কম প্রাইজে কিভাবে পাচ্ছেন।
এই ফোনগুলো মূলত অনেক আগের এবং পুরনো মডেল যেগুলো দোকানে এক হিসাবে গলার কাঁটা হয়ে ঝুলছে তাই এত কম প্রাইজে আপনারা পাচ্ছেন।
তো আশা করছি আপনি আমার মত অতটা বোকা না এতক্ষণে নিশ্চয়ই বুঝে গেছেন ☺️

তো এই ২,৭০০ টাকায় আপনি পাচ্ছেন ৩ গিগাবাইট র্যাম এবং ৩২ গিগাবাইট ইন্টারনাল স্টোরেজ। 1080p পিক্সেল এর ফুল এইচডি ডিসপ্লে।
১৩ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা এবং ৪,৫০০ মিলি এম্পিয়ার এর ব্যাটারি।

তো যাদের বাজেট কম তারা সস্তা চাইনিজ ফোন অথবা লোকাল ব্রান্ডের ফোন ইউজ করতে চাচ্ছেন না অথবা সেকেন্ডারি ফোন খুঁজছেন তাদের জন্য এই ফোনটি কেমন হবে।
সেটি জানতে চাইলে পুরো পোস্টটি পড়তে থাকুন।


শাওমি এমআই ৪ এই ফোনটি উদ্বোধন হয়েছিল ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বরে তো বোঝাই যাচ্ছে অনেক অনেক অনেক দিন আগের ফোন ‌। কি ?? এবার নিশ্চয়ই যারা আমার মত বোকা ছিলেন তারাও বুঝে গেছেন দাম কেন এত কম 😁

দাম যদিও একদম কম তাই বলে কি আমরা একদম নষ্ট ফোন কিনব নাকি? 🙄
আগেই বলে রাখি এই পোস্টটি কেউ স্পন্সর করেনি, সম্পূর্ণ আমার টাকায় কিনে আপনাদের জন্য এটা রিভিউ করছি,


এর কারন হল এর আগের পোষ্টের কমেন্ট বক্সে আপনারা পাগল করে দিচ্ছিলেন যে আপু যদি ফোনটিতে ফোরজি সাপোর্ট করতো তাহলে খুব ভালো হতো। তো যারা 4G ফোন খুঁজছিলেন একদম কম প্রাইজে তাদের জন্য সুখবর কারণ এই Mi 4 এ আপনি 4G সাপোর্টেড পাচ্ছেন।😱❤️
আর আপনাদের চাওয়া আমি চেষ্টা করি পুরন করে দেয়ার 🙄সেই ধারাবাহিকতায় আবারও নতুন পোস্ট নিয়ে চলে আসলাম মানে ফোরজি পোস্ট 😬😁

ও হ্যাঁ আর একটি জলজ্যান্ত সত্যি কথা বলছি🙃 ফোনটা আমার নিজের টাকা দিয়ে কিনে তারপর একটি ছোটখাটো ওপেনিয়ন দিচ্ছি আপনাদের সাথে।❤️
তাই এটা আপনি ধরে নিতে পারেন এই পোস্টে কোন রকম চাপাবাজির আশ্রয় নেয়া হচ্ছে না কারণ কেউ স্পন্সর করে নি ভাই 😁
বাই দা ওয়ে কেউ স্পন্সর করলে কিন্তু আমি অনেক চাপা মারি🥴🥴🥴


তো ফোনটির বক্সে কি আছে?
আছে ডাটা কেবল, ১০ ওয়াট এর চার্জার, ওয়ারেন্টি পেপার, আর বরাবরের মত কোন হেডফোন পাওয়া যাচ্ছে না।

শাওমি তাদের ফ্লাগশিপ ৫,০০০০ টাকার ফোনেও হেডফোন দেয় না🥺 আর এত কনে মাত্র ২৭০০ টাকার ফোন তাই মন খারাপ করার কোন কারন নাই। চিল করুন 🥴

আরেকটি ভালো ব্যাপার হচ্ছে ফোনটিতে পেয়ে যাবেন নোটিফিকেশন লাইট , যেটা নতুন ফোন গুলোর ক্ষেত্রে বিলুপ্তির পথে।
ফোনটা অনেক আগের হলেও দেখে ২০২১ সালের এই বাজেটের একটা ফিল পাওয়া যাবে। ব্যাপারটা খুবই মজার হবে বলুন 😁

আচ্ছা আপনার চাহিদা যদি ফুল এইচডি প্লাস ডিসপ্লের দিকে হয়ে থাকে কিন্তু পকেটে পুরো ফাঁকা মানে ওই দুই তিন হাজার টাকা পড়ে আছে। তাহলে এই ফোনটি চোখ বুঝে নিয়ে নিন কারণ এই ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ফুল এইচডি আইপিএস প্যানেল।😱

সত্য কথা কি জানেন এই ডিসপ্লের ব্যাপারে আমি একটু অবাকই হয়েছি কারণ এই ২০২১ সালে ১০ হাজার টাকার নিচে ফোনে ফুল এইচডি ডিসপ্লে আশা করা যায় না।
আর এটার প্রাইজ তো মাত্র ২৭০০ টাকা যেটা একটা বাটন ফোনের দাম ও না।
যেটা কিন্তু সত্যি অবিশ্বাস্য। আর এই ফোনের ডিসপ্লে ৫,৬ ইঞ্চি পাচ্ছেন আর সেইসঙ্গে ফুল এইচডি ডিসপ্লে ভালো লাগলো আর কি বিষয়টা। 😁


ডিসপ্লে ছোট হওয়ার কারণে কালার সার্ফ নেস ছিল দুর্দান্ত খুবই ভালো ডিসপ্লে বলবো ব্যবহার করা হয়েছে মানে আপনাকে হতাশ করবে না গ্যারান্টি দিলাম বিশেষ করে ডিসপ্লে।❤️❤️❤️

আপনি যদি কোন খাবার খেয়ে হাত ধুয়ে ফোনটি টিপাটিপি করার ট্রাই করেন তাহলে টাচ রেসপন্স বাজে পাবেন মানে ক্লিক করবেন এমএক্স প্লেয়ার এ কিন্ত চলে যাবে শেয়ারইটে 😁

তাই কখনোই ভেজা হাত দিয়ে ফোনটি চালানোর ট্রাই করবেন না আপনি সফল হবেন না গ্যারান্টি 😬

শাওমি মি 4 এ পাচ্ছেন ৩ গিগাবাইট র্যাম এবং ৩২ গিগাবাইট ইন্টারনাল স্টোরেজ সুবিধা এতে এক্সটার্নাল মাইক্রো এইচডি কার্ড ব্যবহার করা যাবে আরো ১২৮ গিগাবাইট পর্যন্ত।

আর প্রসেসর পাচ্ছেন সত্যি অবিশ্বাস্য মানে আমি প্রথমে বিশ্বাস করতে পারছিলাম না 🙄
অবিশ্বাস্য কেন বললাম জানেন কারণ শাওমি মি ৪ ডিভাইসে ব্যবহার করা হয়েছে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৬২৫ আর যেটা কিনা একটা গেমিং প্রসেসর।😱
এবার বলুন আপনি অবাক হননি?🙄 যদি অবাক না হয়ে থাকেন তাহলে আপনার ফোন সম্পর্কে কোন আইডিয়া নেই।😬
এখনকার সময়ে ১০-১৫ হাজার টাকার নিচের ফোনে স্নাপড্রাগণ ৪০০ উপরে পাওয়া যায় না।
আর সেখানে মাত্র ২৭০০ টাকায় আপনি যদি কোয়ালকম স্নাপড্রাগণ ৬২৫ পেয়ে যান তাহলে রীতিমতো সারপ্রাইজ বলা যায় ❤️

ভালো প্রসেসর থাকায় ফোনটিতে পাবজি ফ্রী ফায়ার দুটোই খেলা যাচ্ছিল একেবারে স্মুথলি এটা অবিশ্বাস্য হলেও একদম সত্য কথা ☺️ আবারো বলছি ফ্রী ফায়ার একদমই স্মুথলি খেলা যাচ্ছিল।
হ্যাঁ ভাই সত্যি ফ্রী ফায়ার অনেক দারুণভাবেই খেলা যাচ্ছিল যেটা আমি অবাক হয়েছি বলে বারবার বললাম ❤️

একটানা গেম খেললে ফোনটি একটু গরম হতে পারে তবে সেটা স্বাভাবিক মানে একেবারে ওভারহিট না। মানে আপনাকে ফোনটা ফ্রিজে রাখতে হবে না ভয় পাইয়েন না 😁

তবে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন এর প্রসেসর হওয়াই লোকাল ব্র্যান্ডের যেসব ৩gb ram-এর ফোন আছে সেগুলো থেকে হাজারগুন বেটার পারফরম্যান্স পাওয়া যাবে। এটা আপনার বিশ্বাস করতে হবেই মানে বাধ্য আর কি। 😁

ফোনটির অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে পুরনো সেই অ্যান্ড্রয়েড ৭ নোগাট তবে একেবারে পুরনো বলা চলে না
আর ইউ আই পাচ্ছেন mi9
এই ফোনটির ভালো দিকগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো এর এম আই ইউ আই ওএস কারণ আমরা মোটামুটি সবাই জানি পুরনো ইউ আই গুলো বিশেষ করে শাওমির কতটা বেটার এবং ইসমত।
তো সবশেষে বলবো এর ইউ আই ছিল অস্থির লেভেলের।


আর এই ফোনটির ক্যামেরা অতটা খারাপ না।
ফোনটার ব্যাক ক্যামেরা হিসেবে পাচ্ছেন ১৩ মেগা পিক্সেলের একটি ক্যামেরা এবং সামনে থাকছে মাত্র ৮ মেগা পিক্সেলের একটি সেলফি ক্যামেরা।
আর এই বাজেটে পিকচার কোয়ালিটি যেমন আশা করা যায় তার থেকেও ভালো পাওয়া যাচ্ছিল।
তাই বাজেটের দিকে বিবেচনা করলে আমি গ্যারান্টি দিলাম আপনি হতাশ হবেন না। ❤️

আর সামনের ক্যামেরার কথা বললে ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরাই যেমন ছবি আশা করা যায় ঠিক তেমনি পাওয়া যাচ্ছিল। তাই সামনের ক্যামেরাও আমার কোন অভিযোগ নাই।

তো চলুন এবার কথা বলি স্পিকারের ব্যাপারে।

ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে একটি মাত্র স্পিকার যেটার সাউন্ড কোয়ালিটি অনেক লাউড এবং ক্লিয়ার ছিল।

তো বিশেষ করে রিফারবিশড এবং অনেক আগের ফোনগুলোর ব্যাটারি ব্যাকআপ খুব একটা ভালো পাওয়া যায় না।
তবুও ৪৫০০ মিলি এম্পিয়ারের বিশাল ব্যাটারি থাকাই আপনি একদিনের মত ব্যাটারি ব্যাকআপ পাবেন নরমাল ব্যবহারে আর হেব্বি ব্যবহারে একবার চার্জ দিতে হতে পারে।😬


ব্যাটারি ব্যাকআপ খুব একটা পছন্দ হয়নি আমার তবে ভাই বাজেটের দিকে তাকালে খুব খুব পছন্দ হয়েছে 😁

তো যতটুকু জানতে পারলাম আপনাদেরকে এই ফোনটির ব্যাপারে এতেই খুশি থাকেন কারণ মাত্র ২ দিনের ব্যবহারে আর কত কিছুই বা জানতে পারবো আমি বলুন😐
তবে সব মিলিয়ে যা বুঝতে পারলাম আমার মনে হয় না এই বাজেটে অন্য কোন ফোন এত সব জিনিস আপনাকে অফার করবে।🙄
তাই আপনার বাজেট যদি কম হয় তাহলে ফোনটি চোখ বন্ধ করে নিতে পারেন ❤️❤️❤️

আচ্ছা এখন আপনারা বলবেন ফোনটি কিনবো কোথা থেকে????
এখন আপনার এলাকায় কোথায় পাওয়া যাবে আমিতো ভাই জানিনা 🥺
তবে ঢাকার এলিফ্যান্ট রোডে এই ফোন গুলো পাওয়া যায়।

আমি কিনেছিলাম একটি ইউটিউব চ্যানেল থেকে তো তাদের নাম্বার এবং ভিডিও আপনাদের সুবিধার্তে দিয়ে দিলাম 01316315651 চাইলে যোগাযোগ করে আপনিও কিনতে পারেন।
যদি আপনি আমার মত অলস হয়ে থাকেন আর ঘরে বসেই অর্ডার করতে চান এক্সট্রা ৭০ টাকা ডেলিভারি চার্জ দিয়ে 😁

বিঃদ্রঃ ওই ইউটিউব চ্যানেল বা ওই মোবাইলশপ পোস্টটি স্পন্সর করেনি, আপনাদের সুবিধার্থে আর তারাও ট্রাস্টেড এজন্যই নাম্বার দিলাম।

এখন আমি যদি কিভাবে কিনবেন এটা না বলে দিতাম তাহলে কমেন্ট বক্সে উল্টাপাল্টা লিখতে শুরু করতেন আমি এক হাজার কোটি পার্সেন্ট নিশ্চিত 🙁🙁🙁 তাই দিয়ে দিলাম। ❤️

তো পোস্টটি কেমন লাগলো সেটা কমেন্ট বক্সে জানাবেন জানি খুবই পচা হয়েছে,🥺 রোজা রমজান মাস তারপরও বাজে মন্তব্য করবেন না প্লিজ 🙂
যদি ভালো লেগেই থাকে তাহলে শেয়ার করে দিন আর আর ভালো না লাগলে ইগনোর করুন।🙂
তো সবাই ভাল থাকুন আল্লাহ হাফেজ। ❤️❤️❤️

তো ফোনটি কিনবেন কিভাবে?

আবার ভাইবেন না ওই ভিডিও মালিক আমারে লাখ লাখ টাকা দিছে ভাই
আপনারা যাতে সহজেই কিনতে পারেন তার জন্য দিলাম আর তার থেকেও বড় কথা হল এটা ট্রাস্টেড।❤️❤️❤️

তাই প্লিজ কেউ আবার ভাইবেন না আমি স্পনসর নিয়েছি এটা কোনভাবেই কোন স্পন্সর পোস্ট ছিল না। ধন্যবাদ আশা করছি বুঝতে পারছেন।

ভালো লাগলে লাইক করুন কমেন্ট করে মূল্যবান মতামত শেয়ার করুন আজকের মত এ পর্যন্তই আল্লাহ হাফেজ ❤️❤️❤️

This post is from Trickbd