গত বছরের জুলাই মাসের ১৪ তারিখে JEDEC অ্যানাউন্স করেছে ডেক্সটপ র‍্যামের নতুন জেনারেশন, ডিডিআর ৫।  ডিডিআর ৫ মেমরি পারফরমেন্স ইনপ্রুভমেন্টের পাশাপাশি আরো বেশ কিছু নতুন ফিচার নিয়ে আসছে যা সব মিলিয়ে পূর্ববর্তী জেনারেশনেগুলোর তুলনায় অনেক বড় একটি ইমপ্রুভমেন্ট। অদূর ভবিষ্যতে কনজিউমার লেভেলে আসতে চলেছে ডিডিআর ৫ মেমরি, যা আপনি বা আমি আমাদের নতুন ডেক্সটপে ব্যবহার করতে পারবো।

নতুন ডেক্সটপ বলার কারন হচ্ছে, ডিডিআর ৫ মেমরিতে ব্যাকওয়ার্ড কম্পিটেবলিটি নেই। অর্থাৎ, আপনি আপনার পুরনো সিস্টেমে যেখানে ডিডিআর ৪ র‍্যাম ব্যবহার করতেন, সেখানে ডিডিআর ৫ মেমরি ব্যবহার করতে পারবেন না। তবুও নতুন জেনারেশনের মেমরিগুলোতে নতুন কি কি থাকছে এবং কি কি ইম্প্রুভমেন্টস থাকছে, এগুলো জেনে রাখা ভালো। চলুন জানা যাক ডিডিআর ৫ মেমরির ব্যাপারে।

তবে, ডিডিআর ৫ মেমরির বাপারে জানার আগে এর পূর্ববর্তী জেনারেশনগুলো ব্যাপারে আপনার জানা উচিত। ডিডিআর ২, ৩ এবং ৪ এর বাপারে জানার জন্য নিচের পোস্টটি একবার পড়ে নিতে পারেন।

এবার জানা যাক আপকামিং ডিডিআর ৫ র‍্যামের বাপারে।

স্পিড

প্রথমেই ডিডিআর ৫ এর সবথেকে হাইলাইটেড ফিচারটি জানা যাক। অবশ্যই, এটা হচ্ছে ডাটা ট্র্যান্সফার স্পিড। ডিডিআর ৫ মেমরির ডাটা ট্র্যান্সফার স্পিড আগের জেনারেশনের তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ বেশি ফাস্ট। গত জেনারেশনের মেমরি, অর্থাৎ ডিডিআর ২ এর সর্বোচ্চ ডাটা ট্র্যান্সফার স্পিড ছিলো ৩.২ গিগাবিট প্রতি সেকেন্ড, যেখানে ক্লক রেট ছিলো ১.৬ গিগাহার্জ।

তবে ডিডিআর ৫ ইনিশিয়ালি ৪.৮ গিগাবিট প্রতি সেকেন্ড স্পিডে ডাটা ট্র্যান্সফার করতে সক্ষম, যা পূর্ববর্তী জেনারেশনের তুলনায় ৫০% বেশি ফাস্ট। তবে আল্টিমেটলি ডিডিআর ৫ মেমরিতে সর্বোচ্চ ৬.৪ গিগাবিট প্রতি সেকেন্ড স্পিড পাওয়া সম্ভব হবে, যা ডিডিআর ৪ এর তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ। এর ফলে ডিডিআর ৪ ইউজাররা ডিডিআর ৫ মেমরিতে আপগ্রেড করলে নিশ্চিতভাবেই অনেকটাই বেটার পারফরমেন্সের আশা রাখতে পারেন।

লো ভোল্টেজ

ডিডিআর ৫ মেমরির আরেকটি মেজর চেঞ্জ ইম্প্রুভমেন্ট হচ্ছে, আগের জেনারেশনের তুলনায় এটির অপারেটিং ভোল্টেজ কিছুটা কমানো হয়েছে, যার অর্থ হচ্ছে ডিডিআর ৪ এর তুলনায় ডিডিআর ৫ মেমরি কিছুটা কম পাওয়ার ব্যাবহার করবে। ডিডিআর ৫ মেমরির ক্ষেত্রে ডির‍্যাম, বাফার চিপ রেজিস্টারিং ক্লক ড্রাইভার এবং ডাটা বাফার ভোল্টেজ  ১.২ ভোল্ট থেকে কমিয়ে ১.১ ভোল্ট করা হয়েছে, যার কারণে আগের জেনারেশনের র‍্যামের তুলনায় ডিডিআর ৫ র‍্যাম কিছুটা পাওয়ার এফিশিয়েন্ট।


Domain and Web Hosting in BD

নতুন পাওয়ার আর্কিটেকচার

ডিডিআর ৫ র‍্যামের আরেকটি মেজর ইম্প্রুভমেন্ট হচ্ছে এর নতুন পাওয়ার আর্কিটেকচার। পূর্ববর্তী ডিডিআর ৪ মেমরির ক্ষেত্রে যত ধরনের পাওয়ার ম্যানেজমেন্টের দরকার হতো, সবকিছুই করা হতো মাদারবোর্ডে। পাওয়ার ম্যানেজমেন্টে র‍্যামের নিজের কোন হাত ছিলো না।

তবে, ডিডিআর ৫ মেমরির ক্ষেত্রে পাওয়ার ম্যানেজমেন্টকে মাদারবোর্ড থেকে সরিয়ে সরাসরি র‍্যাম স্টিকে নিয়ে আসা হয়েছে। ডিডিআর ৫ মেমরিতে থাকবে ১২ ভোল্টের একটি পাওয়ার ম্যানেজমেন্ট আইসি বা ভোল্টেজ রেগুলেটর, যার ফলে ডিডিআর ৫ মেমরিতে পাওয়া যাবে আগের জেনারেশনের তুলনায় আরো বেটার পাওয়ার লোডিং গ্রানুলারিটি।

নতুন চ্যানেল আর্কিটেকচার

ডিডি আর ৫ মেমরির আরেকটি মেজর ইম্প্রুভমেন্ট হচ্ছে, মেমরি মডিউলের নতুন চ্যানেল আর্কিটেকচার। পূর্ববর্তী জেনারেশনের মেমরি, অর্থাৎ ডিডিআর ৪ মেমরি মডিউলে ছিল ৭২ বিট বাস, যা তৈরি করা হয়েছিলো ৬৪ ডাটা বিটস এবং ৮ ইসিসি বিটসের সাহায্যে। তবে ডিডি আর ৪ মেমরির প্রত্যেকটি মডিউলে থাকবে দুটি করে চ্যানেল।

দুটি আলাদা আলাদা ছোট চ্যানেল থাকার কারণে আগের তুলনায় মেমরি অ্যাক্সেস করা আরো বেশি এফিশিয়েন্ট হবে। দুটি চ্যানেল থাকার কারণে ডিডিআর ৫ র‍্যামের এই ইম্প্রুভড রিড এবং রাইট স্পিডের সুবিধা আরো এফিশিয়েন্টলি নেওয়া যাবে।


Domain and Web Hosting in BD

ডির‍্যাম ক্যাপাসিটি

ডিডিআর ৫ মেমরির আরেকটি বড় ইম্প্রুভমেন্ট হচ্ছে এর ডির‍্যাম ক্যাপাসিটি আগের তুলনায় অনেকটাই বাড়ানো হয়েছে। ডিডিআর ৫ এর বাফার চিপের কারণে আপনি একটি সিঙ্গেল প্যাকেজে আগের তুলনায় আরো অনেক বেশি ক্যাপাসিটির র‍্যাম ব্যবহার করতে পারবেন। সহজ কথায়, এর মানে হচ্ছে আপনি আরো বেশি ক্যাপাসিটির সিঙ্গেল র‍্যাম স্টিক পাবেন। ডিডিআর ৫ ব্যবহার করলে আপনাকে পাশাপাশি কয়েকটি আলাদা আলাদা র‍্যাম স্টিক বসিয়ে আপনার র‍্যামের ক্যাপাসিটি বাড়াতে হবে না।

ডিডিআর ৫ র‍্যামের ক্ষেত্রে একটি সিঙ্গেল প্যাকেজে সর্বোচ্চ ৬৪ জিবি পর্যন্ত ডির‍্যাম ব্যবহার করা সম্ভব হবে। পূর্ববর্তী জেনারেশনের সাথে এর তুলনা করলে দেখা যায় যে, ডিডিআর ৫ এর ডির‍্যাম ক্যাপাসিটি ডিডিআর ৪ এর তুলনায় ৪ গুন বেশি। ডিডিআর ৪ এর ক্ষেত্রে আপনি সর্বোচ্চ একটি স্টিকে ৩২ জিবি পর্যন্ত ক্যাপাসিটি পেতে পারতেন। এর ফলে একটার পর একটা র‍্যাম স্ট্যাক করলেও অধিকাংশ সিস্টেমেই কিছুটা লিমিটেশন থেকে যেত, যদি সিস্টেমটি অনেক বেশি হাই এন্ড করার পরিকল্পনা থেকে থাকে, বিশেষ করে সার্ভার কম্পিউটারগুলোর ক্ষেত্রে।

কিন্তু ডিডিআর ৫ এর ক্ষেত্রে যেহেতু আপনি একটি সিঙ্গেল স্টিকে সর্বোচ্চ ৪ গুন বেশি ডির‍্যাম ক্যাপাসিটি পাচ্ছেন, তাই ডিডিআর ৫ ব্যবহার করে আপনি চাইলে ভবিষ্যতে একটি স্টিকে সর্বোচ্চ ১২৮ জিবি পর্যন্ত ক্যাপাসিটি পাওয়া সম্বব হবে। এর ফলে ডিডিআর ৫ মেমরি ব্যবহার করে আগের তুলনায় আরো অনেক বেশি হাই এন্ড সিস্টেম তৈরি করা সম্বন হবে।


Domain and Web Hosting in BD

হায়ার ক্যাপাসিটি ডির‍্যামের জন্য ডিডিআর ৫ র‍্যামে কিছু ফিচারস আছে যেগুলো আগের জেনারেশনের র‍্যামে নেই। যেমন- এরর ট্রান্সপারেন্সি মোড, পোস্ট-প্যাকেজ রিপেয়ার এবং রিড-রাইট সিআরসি মোড।

রিলিজ এক্সপেক্টেশন

আপনি লিডিং স্মার্টফোন ম্যানুফ্যাকচারারগুলোর লেটেস্ট ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোনগুলোর স্পেকসের দিকে লক্ষ্য করলে দেখবেন যে, অলরেডি তারা ডিডিআর ৫ র‍্যাম ব্যবহার করছে। সেগুলো স্মার্টফোন কোম্পানিগুলোর ইন-হাউজ র‍্যাম। তবে আপনি যদি ডেক্সটপ র‍্যামের কথা বলেন, তাহলে শুধুমাত্র ডিডিআর ৫ মেমরি স্টিক তৈরি করলেই হবে না, এই মেমরি স্টিকগুলো ব্যবহার করার জন্য কম্পিটেবল সিস্টেমও আপনার দরকার হবে। ডিডিআর ৫ মেমরি ব্যবহার করার জন্য আপনার ডিডিআর ৫ সাপোর্টেড সিপিইউ এবং মাদারবোর্ডও দরকার হবে।

এর ফলে ভবিষ্যতে আপনার নিজের ডেক্সটপে ডিডিআর ৫ র‍্যাম ব্যবহার করতে চাইলে আপনাকে অপেক্ষা করতে হবে ইন্টেল এবং এএমডি’র জন্য, যতক্ষন না তারা ডিডিআর ৫ সাপোর্টেড সিপিইউ বাজারে আনে। শুধু তাই নয়, এরপরেও আপনাকে মাদারবোর্ড ম্যানুফ্যাকচারারদের জন্য অপেক্ষা করতে হবে যতক্ষন না পর্যন্ত তারা ডিডিআর ৫ মেমরি সাপোর্টেড মাদারবোর্ড বাজারে আনছে। তাই আশা করা যায়, খুব দ্রুত আপনি ব্যবহার করতে পারবেন না ডিডিআর ৫ র‍্যাম। তবে আশা রাখা যায় যে চলতি বছরের শেষের দিকে কনজিউমার লেভেলে ডিডিআর ৫ র‍্যাম সকল কম্পিটেবল কম্পোনেন্টসের সাথে ব্যবহার করা সম্ভব হবে।



WiREBD এখন ইউটিউবে, নিয়মিত টেক/বিজ্ঞান/লাইফ স্টাইল বিষয়ক ভিডিও গুলো পেতে WiREBD ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুণ! জাস্ট, youtube.com/wirebd — এই লিংকে চলে যান এবং সাবস্ক্রাইব বাটনটি হিট করুণ!

 

This content is from WIREBD.