২০২১ সালে কি আপনার PHP শেখা উচিৎ?

 

এখনকার সময়ে আপনি যদি ফুল স্ট্যাক ওয়েব ডেভেলপমেন্ট শিখতে চান, তাহলে ওয়েবের বেসিক স্ট্রাকচার, HTML এবং CSS এর পাশাপাশি জাভাস্ক্রিপ্ট এবং কোনো একটি সার্ভার সাইড ল্যাংগুয়েজ আপনাকে শিখতে হবে, বিশেষ করে আপনি যদি ফুল স্ট্যাক (ফ্রন্টএন্ড+ব্যাকএন্ড) ডেভেলপার হতে চান।

ফ্রন্টএন্ড ডেভেলপমেন্টের জন্য HTML, CSS ও ভ্যানিলা জাভাস্ক্রিপ্ট এবং কোনো একটি ফ্রন্টএন্ড ফ্রেমওয়ার্ক (React/Vue/Svelte) শিখতে পারেন। তবে ব্যাকএন্ডের জন্য আপনার কাছে বেশ কিছু অপশন আছে। সার্ভার সাইড ডেভেলপমেন্ট বা ব্যাকএন্ড ডেভেলপমেন্টের জন্য আপনি Python বা NodeJs, GOlang কিংবা গুড-ওল্ড PHP শিখতে পারেন এবং ব্যাবহার করতে পারেন। ব্যাকএন্ডের জন্য এই ৪ টি ল্যাংগুয়েজই যথেষ্ট পাওয়ারফুল।


Domain and Web Hosting in BD

কিন্তু বর্তমানে অনেক ওয়েব ডেভেলপারদেরকে বা অনেক ওয়েব ডেভেলপমেন্ট কমিউনিটিতে আপনি অনেককেই বলতে শুনবেন যে, PHP একটি ডেড ল্যাংগুয়েজ। ২০২০ সালে এবং ইন-ফিউচার কোনো ওয়েব ডেভেলপমেন্ট প্রোজেক্টে পিএইচপি ব্যাবহার করার কোনো পয়েন্ট নেই এবং বিগিনারদের বর্তমানে PHP কে অ্যাভয়েড করে অন্য কোনো সার্ভার-সাইড ল্যাংগুয়েজ শেখা উচিৎ। কিন্তু এই কথাগুলো কতটুকু যুক্তিযুক্ত? আমার মনে হয়না এমনটা ভাবা যৌক্তিক। সত্যিই কি PHP এখন ডেড ল্যাংগুয়েজ? চলুন এটা নিয়েই আলোচনা করা যাক। তবে প্রথমে জানা উচিৎ,

কেন অনেকে PHP অপছন্দ করেন?

এই প্রশ্নটির অনেক রকম উত্তর রয়েছে। কাকে প্রশ্নটি করা হচ্ছে তার ওপরে ডিপেন্ড করে আপনি একেকজনের কাছ থেকে একেকরকম উত্তর পাবেন এই প্রশ্নের। তবে মূলত যেসব কমন কারণে অনেক ওয়েব ডেভেলপার PHP কে অপছন্দ করেন, সেগুলো হচ্ছে-

১। অন্যান্য মেইনস্ট্রিম প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ বা স্ক্রিপ্টিং ল্যাংগুয়েজের তুলনায় অনেক বেশি ঝামেলাপূর্ণ ইনিশিয়াল সেটাপ।


Domain and Web Hosting in BD

২। অন্যান্য ডায়নামিক্যালি টাইপড প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজের তুলনায় PHP এর সিনট্যাক্স একটু “আজব” ধরনের, যার সাথে অনেকেই খাপ খায়িয়ে নিতে পারেন না, যারা মূলত অন্যান্য ল্যাংগুয়েজ থেকে PHP তে মুভ করেন।

৩। টেমপ্লেটিং ইঞ্জিনের মতো ডিরেক্টলি HTML ট্যাগসের মধ্যেই PHP কোডস লিখতে পারার কিছু রিয়াল অ্যাডভান্টেজ থাকলেও অনেকেই এই প্র‍্যাক্টিসের সাথে অভ্যস্থ নন এবং পছন্দও করেন না।

৪। PHP তে এক্সটার্নাল প্যাকেজ ইন্সটল করা এবং মেইনটেইন করা অনেকটাই জটিল, যদি আপনি উদাহরণস্বরূপ, পাইথনের Pip এবং NodeJs এর NPM প্যাকেজ ম্যানেজারের সাথে তুলনা করেন। তাই যারা NPM এর সাথে অভ্যস্ত, তাদের কাছে স্বভাবতই PHP তে এক্সটারনাল প্যাকেজ অ্যাড করা এবং ম্যানেজ করা ঝামেলার কাজ মনে হয়।

যে কারণে PHP এখনো উপযোগী

এসব ঝামেলার পরেও PHP কেন এখনো আছে এবং কেন এখনো PHP শেখা উচিৎ বলে কেন আমরা মনে করছি? তার সবথেকে বড় কারণ আমাদের চোখের সামনেই। বর্তমানে ইন্টারনেটের মোটামুটি ৮০℅ ওয়েবসাইটই এখনো PHP ব্যাবহার করছে এবং ভবিষ্যতেও করবে। ইভেন আপনি যে ওয়েবসাইটে বা ব্লগে এই মুহুর্তে এই লেখাটি পড়ছেন, সেই ওয়েবসাইটটিও কিন্তু PHP ব্যাবহার করেই তৈরি করা হয়েছে।

তাই আপনি বা আমি যে কারণেই PHP কে যতই অপছন্দ করি না কেন, PHP সবসময়ই মোস্ট ইউজড সার্ভার-সাইড ল্যাংগুয়েজের প্রথম সারিতে ছিলো, আছে এবং থাকবে। যদি আপনি বাকি সবকিছুই বাদ রাখেন, তাহলে শুধুমাত্র এই একটা রিজনই এনাফ, PHP কেন শিখবেন এর উত্তর হিসেবে। কারণ, আপনি নিশ্চিত থাকতে পারেন যে রাতারাতি ইন্টারনেটের ৮০℅ ওয়েবসাইটই PHP থেকে অন্য কোনো ল্যাংগুয়েজে মুভ করবে না এবং করতে পারবে না। আর চাইলে তা করার জন্য কমপক্ষে আরও ১৫ থেকে ২০ বছর সময় লাগবে।

যদিও আরো কয়েকটি সার্ভার সাইড ল্যাংগুয়েজ (যেমন NodeJs এবং GOlang) কিছু ক্ষেত্রে ফিচারসের দিক থেকে PHP এর থেকেও এগিয়ে আছে, তবে PHP কোনমতেই ডেড ল্যাংগুয়েজ নয়। বরং আপনি যদি ওয়েব ডেভেলপমেন্ট শিখতে চান, এখনকার সময়ে আপনার জন্য সবথেকে ভালো চয়েজ হবে PHP।

যেসব কারনে আপনার এখনো PHP শেখা উচিৎ

যদি এক কথায় বলতে হয়, সিম্পলি PHP এখনো সবথেকে বেশি ইউজ হওয়া সার্ভার সাইড ল্যাংগুয়েজ। আর তাই বর্তমানে জব মার্কেটেও PHP ডেভেলপারদের চাহিদা সবথেকে বেশি। এই কারনেই আপনার এখনো PHP শেখা উচিৎ। কারণ, আপনি নিশ্চিত থাকতে পারেন যে, আগামী ১০-১৫ বছরে অন্তত এশিয়াতে অন্যান্য ডেভেলপারের চাহিতা কমলেও PHP ডেভেলপারদের চাহিদা একেবারেই কমবে না। আর যদি PHP শেখার কয়েকটি স্পেসিফিক রিজন জানতে চান,

# PHP খুবই স্বয়ংসম্পূর্ণ বা Matured একটি ল্যাংগুয়েজ

আপনি হয়তো জানেন যে, সবথেকে ওল্ড প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজগুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে PHP, যা রিলিজ হয়েছিলো আজ থেকে প্রায় ২৭ বছর আগে এবং PHP এখনো অ্যাক্টিভ ডেভেলপমেন্টে আছে। একটি প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ যদি ২৭ বছর ধরে অ্যাক্টিভ ডেভেলপমেন্টে থাকে, তাহলে তা কতটা স্ট্যাবল এবং কতোটা Matured হতে পারে তা আর বলার অপেক্ষা রাখেনা। বেসিক সবকিছু থাকার পাশাপাশি OOP এবং প্রায় সব মডার্ন প্রোগ্রামিং ফাংশনালিটিই আছে PHP তে যা আপনি অন্য সব হাই লেভেল ডায়নামিক্যালি টাইপড প্রোগ্রামিং বা স্ক্রিপ্টিং ল্যাংগুয়েজে দেখতে পাবেন অথবা পাবেন না!

# PHP ওয়েব সিকিউরিটির জন্য ভালো

আমরা সবাই জানি যে ইন্টারনেট খুব একটা ফ্রেন্ডলি প্লেস নয়। যেকোনো সময় যেকোনো ওয়েবসাইটই সাইবার অ্যাটাকের শিকার হতে পারে। তবে অন্যান্য অনেক টেকনোলজির তুলনায় PHP বেশি সিকিওর। বেশ কিছু সিকিউরিটি ইনফ্রাস্ট্রাকচার PHP তে বিল্ট-ইন রয়েছে যেগুলো ব্যাবহার করে আপনি সহজেই আপনার ওয়েব অ্যাপ্লিকেশনটি সিকিওর করতে পারবেন।

# PHP ওপেন-সোর্স এবং সম্পূর্ণ ফ্রি

এর মানে হচ্ছে PHP শুধু ফ্রি-টু-ইউজ নয়, আপনি চাইলে PHP এর সোর্স কোডও ইন্সপেক্ট করে দেখতে পারবেন। লিনাক্সে PHP খুব ভালোভাবেই ইন্টাগ্রেট করতে পারা যায়। অর্থাৎ, PHP এর সম্পুর্ণ স্ট্যাকটিই ফ্রি এবং ওপেন-সোর্স। HTML CSS থেকে শুরু করে JS Mysql Linux অর্থাৎ PHP এর সম্পুর্ণ স্ট্যাকে সাধারনত যা যা ব্যাবহার করা হয় সবকিছুই ফ্রি এবং ওপেন-সোর্স।

# ওয়ার্ডপ্রেস এবং লারাভেল

ওয়ার্ডপ্রেস এর ব্যাপারে না বললে PHP এর একটি বড় অংশ বাদ দেওয়া হয়ে যায়। এমন সময়ে ওয়ার্ডপ্রেস চেনে না এমন ইন্টারনেট ইউজার খুঁজে পাওয়া কষ্টকর। বর্তমানে সবথেকে জনপ্রিয় এবং সবথেকে বেশি ব্যাবহার হওয়া CMS হচ্ছে ওয়ার্ডপ্রেস, যা তৈরি করা হয়েছে PHP ব্যাবহার করে। বর্তমানে ইন্টারনেটের প্রায় ৬০℅ ওয়েবসাইটই ওয়ার্ডপ্রেস ব্যাবহার করছে।


Domain and Web Hosting in BD

তাই ওয়ার্ডপ্রেস যতদিন আছে, ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপার এবং ভ্যানিলা PHP ডেভেলপার তথা PHP ল্যাংগুয়েজের চাহিদা বাড়তেই থাকবে। বর্তমানে ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপারদের চাহিদা প্রচুর। তবে ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপার হতে হলে আগে আপনাকে PHP শিখতে হবে। আর PHP ব্যাবহার করে তৈরি করা ওয়েব ফ্রেমওয়ার্কগুলো, যেমন- কোডইগনাইটর, লারাভেল এগুলোও বর্তমানে অত্যন্ত জনপ্রিয় ওয়েব ফ্রেমওয়ার্ক, আর এগুলো ব্যাবহার করতে হলে অবশ্যই PHP জানতে হবে!

# PHP হোস্টিং আপনি সব ধরনের ক্লাউড সার্ভারে পাবেন

PHP সবথেকে বেশি ব্যাবহার হওতা স্ক্রিপ্টিং ল্যাংগুয়েজ হওয়ায়, আপনার PHP দিয়ে তৈরি করা ওয়েব অ্যাপ্লিকেশনটি ডিপ্লয় করার জন্য কখনোই কোন ঝামেলা পোহাতে হবে না। বর্তমানে মার্কেটে যত ক্লাউড হোস্টিং প্রোভাইডার আছে, তাদের প্রত্যেকেই PHP হোস্টিং প্রোভাইড করে।

# বেসিক PHP শেখা খুবই সহজ

পাইথন এতো জনপ্রিয় প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ হওয়ার অন্যতম একটি কারণ হচ্ছে, বেসিক পাইথন শেখা বিগিনারদের জন্য বেশ সহজ। আর যারা অলরেডি অন্য কোনো প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ জানেন, তাদের জন্য সম্পুর্ণ ল্যাংগুয়েজটি শেখাই আরও বেশি সহজ। PHP এর ক্ষেত্রেও ব্যাপারটা এমনই। আপনার যদি সি বা সি শার্প কিংবা পাইথন বা জাভাস্ক্রিপ্ট কোনকিছু নিয়ে পূর্ব অভিজ্ঞতা থাকে, তাহলে PHP শেখা আপনার জন্য খুবই সহজ হবে। যদিও PHP এর সিনট্যাক্স এবং ডলার সাইন দিয়ে ভ্যারিয়েবল ডিক্লেয়ার করার ব্যাপারটা একটু আজব ধরনের, যার সাথে মানিয়ে নেওয়া একটু কঠিন, তবে PHP এর অ্যাকচুয়াল সিনট্যাক্স অন্যান্য অনেক ল্যাংগুয়েজের তুলনায় অনেকটাই সহজ এবং স্ট্রেইট ফরওয়ার্ড। প্রোগ্রমিং শেখার জন্য কয়েকটি বেস্ট ফ্রি ওয়েবসাইটের ব্যাপারে জানতে চাইকে এই আর্টিকেলটি পড়তে পারেন।

# সাপোর্টের জন্য সুবিশাল কমিউনিটি

PHP অনেক আগের এবং সবথেকে বেশী ব্যাবহার হওয়া সার্ভার-সাইড স্ক্রিপ্টিং ল্যাংগুয়েজ হওয়ায় PHP এর আছে অন্যান্য অনেক প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজের থেকে অনেক বড় কমিউনিটি, যার সাহায্যে আপনি PHP এর যেকোনো স্ট্যাক ব্যাবহার করার সমত যেকোনো সমস্যার সম্মুখীন হলে খুব সহজেই আপনি সমস্যার সমাধান পেয়ে যাবেন। StackOverflow থেকে শুরু করে গিটহাব এবং লিনাক্সের ইউজার কমিউনিটিগুলোতেও আপনি PHP এর ব্যাপারে হেল্প এক্সপেক্ট করতে পারবেন। অনেক পুরোনো এবং জনপ্রিয় স্ক্রিপ্টিং ল্যাংগুয়েজ হওয়ায় নিশ্চিতভাবেই বলা যায় যে এখানে আপনি এমন কোনো প্রবলেমে পড়বেন না যেই প্রবলেমটি পূর্বে অন্য কেউ ফেস করেনি। তাই এইসকল প্রবলেমের সমাধানও আগে থেকেই ইন্টারনেটে আছে!


২০২০-২১ সালেও কেন আপনার PHP শেখা উচিৎ, এই বিষয়ে বলতে হলে আরও অনেক অনেক রিজন দেখানো সম্ভব। এখানে প্রধান কয়েকটি রিজন দেখানো হয়েছে। যাইহোক, আজকের মতো এখানেই শেষ করছি। কোন প্রশ্ন বা মতামত থাকলে অবশ্যই কমেন্ট সেকশনে জানাবেন